1. admin@dailyoporadh.com : admin :
হার-জিত ম্যাচেরই অংশ, কিন্তু বাংলাদেশ ম্যাচে যেভাবে হারল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। সংবাদ সম্মেলনে সে প্রশ্নই উঠল—দায়টা কার - দৈনিক অপরাধ
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০৪ অপরাহ্ন
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
(ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের আটকাবস্থা থেকে দুই ম্যাজিস্ট্রেটসহ পাঁচজনকে রোববার রাতে উদ্ধার করা হয়েছে ৪১তম বিসিএসের আবশ্যিক বিষয়ের লিখিত পরীক্ষা আজ সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে অন্যের হয়ে পরীক্ষা দিতে গিয়ে ধরা পড়া বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এক ছাত্রকে কারাগারে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরিস্থিতি নিয়ে আজ সন্ধ্যায় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার রায় আজ করোনাভাইরাসের নতুন ধরন (ভেরিয়েন্ট) ১১টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ব্লুটুথ প্রযুক্তিসংবলিত কোনো মোটরসাইকেলের নিবন্ধন দেবে না বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) ডিসেম্বরের শুরুতে এটি নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে: আবহাওয়া অধিদপ্তর শিক্ষার্থীদের কম ভাড়ায় চলাচল নিশ্চিত করা উচিত, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ২৪ ঘণ্টায় আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে

হার-জিত ম্যাচেরই অংশ, কিন্তু বাংলাদেশ ম্যাচে যেভাবে হারল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। সংবাদ সম্মেলনে সে প্রশ্নই উঠল—দায়টা কার

লিংকন
  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫১ বার পঠিত

মুশফিকুর রহিম হাসিমুখে সংবাদ সম্মেলনে আসতে পারেননি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৭১ রানের পুঁজি নিয়েও যে বাংলাদেশ জিততে পারেনি।

হার-জিত ম্যাচেরই অংশ, কিন্তু বাংলাদেশ ম্যাচে যেভাবে হারল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। সংবাদ সম্মেলনে সে প্রশ্নই উঠল—দায়টা কার?

মুশফিক এ প্রশ্নের জবাব দেওয়ার আগে বাংলাদেশের হারের ধরন সম্পর্কে জানিয়ে রাখা ভালো। শ্রীলঙ্কার ৫ উইকেটের জয়ে পঞ্চম উইকেটে ৫২ বলে ৮৬ রানের জুটি গড়েন পাথুম আসালাঙ্কা-ভানুকা রাজাপক্ষে।

তার আগে দ্বিতীয় উইকেটে পাথুম নিশাঙ্কার সঙ্গেও ৪৫ বলে ৬৯ রানের জুটি গড়েন আসালাঙ্কা। ৪৯ বলে ৮০ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। রাজাপক্ষে করেন ৩১ বলে ৫৩ রান। শ্রীলঙ্কার জয়ে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখা এ দুই ব্যাটসম্যানই ‘জীবন’ পেয়েছেন। রাজাপক্ষে ব্যক্তিগত ৯ রানে এবং আসালাঙ্কা ৬৩ রানে থাকতে তাদের ক্যাচ ছাড়েন লিটন দাস।
সংবাদ সম্মেলনে স্বাভাবিকভাবেই এই ক্যাচ ছাড়া নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। শেষ ১০ ওভারে বোলিংও ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশ। সব মিলিয়ে হারের কারণটা কি—এ প্রশ্নের জবাবে মুশফিকের ব্যাখ্যা, ‘দায় চাপানোর কিছু নেই। আমরা যত বড় সংগ্রহই করি না কেন, ম্যাচে ছোটখাটো কিছু ভুল থাকেই, কিছু ইতিবাচক বিষয়ও থাকে। আমার মনে হয়, ক্যাচ দুটি গুরুত্বপূর্ণ ছিল। লিটন খুবই ভালো ফিল্ডার।’

মুশফিক এরপরই খানিকটা রসিকতা করে বলেন, ‘আমার কাছ থেকে মিস (ক্যাচ ছাড়লে) হলে হয়তো ভিন্ন কিছু হতো। আমি ওরকম মানের ফিল্ডার না, সে আমাদের অন্যতম সেরা ফিল্ডার। মুহূর্তটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল, জুটি ভাঙা দরকার ছিল।’

মুশফিক মনে করেন ম্যাচে ছোট-খাটো কিছু ভুলের কারণেই হারতে হলো। তাঁর ব্যাখ্যা, ‘সাধারণত শারজার উইকেট যেমন হয়, ১৪০-১৫০ জেতার মতো স্কোর। আজকের উইকেটে ব্যাটিং করে যেটা টের পেয়েছি, (সীমানার) এক দিক ছোট ছিল। আমরা জানতাম ১৭০ হয়তো জয়ের মতো সংগ্রহ না, কিন্তু আমরা যদি শুরুটা ভালো করি এবং সুযোগগুলো নিতে পারি তাহলে ম্যাচে থাকতে পারব। আমরা দ্রুত উইকেট নিলেও ওরা প্রথম ৬ ওভারে ভালো করেছে। সাকিবের ওই ওভারে আমরা আবারও ম্যাচে ফিরেছিলাম। কিন্তু উইকেটে সেট ব্যাটসম্যান থাকায় খুব সহজে ম্যাচটা বের করেছে। সব মিলিয়ে আমি মনে করি, দায়-টায় নয়, আমরা ছোটখাটো কিছু ভুল করেছি, সে কারণে ম্যাচটা জিততে পারিনি।’

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd