1. admin@dailyoporadh.com : admin :
জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে মারাত্মক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে বিশ্ব - দৈনিক অপরাধ
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৬ পূর্বাহ্ন
সোমবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:০৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
রোগী শনাক্তের হার বেড়ে ১০ শতাংশ ছাড়িয়েছে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কিংবদন্তিতুল্য সংগীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকর মেঘাচ্ছন্ন আকাশ ও বৃষ্টির কারণে তাপমাত্রা কমতে পারে ঢাকার বাইরে সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছেন চট্টগ্রামে দেশে করোনা রোগী শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে প্রতিদিন আগামী শনিবার থেকে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলাচল করবে ট্রেন লেনদেনের তালিকা তৈরি করেছে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকম লিমিটেড ও তাদের পেমেন্ট গেটওয়ে প্রতিষ্ঠান ফস্টার করপোরেশন লিমিটেড করোনা সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকায় গণপরিবহনে যাত্রী চলাচল নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পৌষের প্রায় শেষ, মাঘ আসি আসি করছে ১২ থেকে ১৮ বছর বয়সী সব শিক্ষার্থীকে ১৫ জানুয়ারির মধ্যে করোনার টিকা দিতে হবে

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে মারাত্মক প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে বিশ্ব

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৫২ বার পঠিত

বিশ্বে ১৯৭০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বিগত ৫০ বছরে আমাদের এই অঞ্চলের আইলা–আম্পান, জাপানের সুনামি ও যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাটরিনার মতো মোট ১১ হাজার প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়েছে। এতে মোট ২০ লাখের বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে এবং ৩ দশমিক ৬৪ ট্রিলিয়ন বা ৩ লাখ ৬৪ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

ওয়ার্ল্ড মেট্রোলজিক্যাল অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএমও) বলছে, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব, উষ্ণতা, বন্যা, খরা ও আবহাওয়াজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগে বিশ্বে ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে প্রতিদিন গড়ে ১১৫ জনের মৃত্যু ও ২০ কোটি ২০ লাখ মার্কিন ডলারের আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। তবে ডব্লিউএমও আশার বাণীও শুনিয়েছে। বলেছে, ১৯৭০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত আগেভাগে সতর্কীকরণ ও ব্যবস্থাপনা প্রস্তুতি কার্যক্রম নেওয়া হলে প্রাকৃতিক দুর্যোগজনিত মৃত্যু কমিয়ে তিন ভাগের এক ভাগে নামিয়ে আনা যায়।

গত ৫০ বছরে বিশ্বে যত প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা গেছে, তার ৫০ শতাংশই ঘটেছে আবহাওয়া, জলবায়ু ও পানিসংক্রান্ত সমস্যার কারণে। আর প্রাকৃতিক দুর্যোগে যত মৃত্যু ও অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়েছে, তার যথাক্রমে ৪৫ ও ৭৪ শতাংশই হয়েছে এই তিন কারণে। প্রাকৃতিক দুর্যোগে হওয়া মোট মৃত্যুর ৯১ শতাংশ হয়েছে উন্নয়নশীল দেশগুলোতে।

আলোচ্য পাঁচ দশকে সবচেয়ে বড় ১০টি প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে খরায় সাড়ে ৬ লাখ, ঘূর্ণিঝড়ে ৫ লাখ ৭৭ হাজার, বন্যায় প্রায় ৫৯ হাজার ও উষ্ণতার কারণে প্রায় ৫৬ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী ১৯৭০ সালে যেখানে ৫০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে, সেখানে ২০১০ সালে তা কমে ২০ হাজারের নিচে নেমেছে।

তবে এই সময়ে অর্থনৈতিক ক্ষতি সাত গুণ বেড়েছে। গত ৫০ বছরে সবচেয়ে ভয়াবহ ১০ প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে ঝড়ে ৫২ হাজার ১০০ কোটি ও বন্যায় ১১ হাজার ৫০০ কোটি ডলারের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

এশিয়া

১৯৭০ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এশিয়া বড় ধরনের মোট ৩ হাজার ৪৫৪টি প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে পড়েছে। এর ৪৫ শতাংশ হলো বন্যা ও ৩৬ শতাংশ ঝড়। এসব দুর্যোগে প্রায় ৯ লাখ ৭৬ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। আর অর্থনৈতিক ক্ষতির পরিমাণও বিপুল, যা সব মিলিয়ে প্রায় সোয়া লাখ কোটি ডলার (১ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন), যা আলোচ্য সময়ে মোট বৈশ্বিক ক্ষতির ৩১ শতাংশ। ওই পাঁচ দশকে বিশ্বব্যাপী আবহাওয়া, জলবায়ু পরিবর্তন, বন্যা ও ঝড়-জলোচ্ছ্বাসজনিত যত প্রাকৃতিক দুর্যোগ দেখা গেছে, তার এক-তৃতীংয়াংশ বা ৩১ শতাংশ হয়েছে এই অঞ্চলে। মৃত্যু বিবেচনায়ও সবচেয়ে দুরবস্থা দেখা গেছে এশিয়ায়। গত ৫০ বছরে বিশ্বে প্রাকৃতিক দুর্যোগে যত মানুষ মারা গেছে, তার ৪৭ শতাংশই হলো এশিয়ার।

তবে এশিয়ায় প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি নেতিবাচক প্রভাব পড়ে ঝড়ের কারণে। বিশেষ করে ৭২ শতাংশ মৃত্যুই হয় ঝড়ের কারণে। আর সবচেয়ে অর্থনৈতিক ক্ষতি হয় বন্যা দেখা দিলে, যা শতকরা হিসাবে ৫৭ শতাংশ। এশিয়ায় মোট প্রাকৃতিক দুর্যোগের মারা যাওয়া মানুষের ৭০ শতাংশ বা ৬ লাখ ৮১ হাজার জনের মৃত্যু হয়েছে সবচেয়ে বড় ১০ প্রাকৃতিক দুর্যোগে। এসব দুর্যোগে যে আর্থিক ক্ষতি হয়, তা মোট ক্ষতির ২২ শতাংশ বা ২৬ হাজার ৬৬২ কোটি ডলার।

আফ্রিকা

বিগত ৫০ বছরে আফ্রিকায় ১ হাজার ৬৯৫টি প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়, যা একই সময়ে বিশ্বের মোট দুর্যোগের ১৫ শতাংশ। এতে ৭ লাখ ৩২ হাজার মানুষ মারা যায়, যা ওই সময়ের বৈশ্বিক মৃত্যুর ৩৫ শতাংশ। আর অর্থনৈতিক ক্ষতি হয় ৩ হাজার ৮৫০ কোটি ডলারের, যা বৈশ্বিক ক্ষতির ১ শতাংশ। এই সময়ে বিশ্বব্যাপী আবহাওয়া, জলবায়ু ও ঝড়-জলোচ্ছ্বাসজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগে যত মানুষ মারা গেছে, তার এক-তৃতীংয়াংশ বা ৩১ শতাংশ হয়েছে এই অঞ্চলে।

আফ্রিকায় মোট প্রাকৃতিক দুর্যোগের ৬০ শতাংশই হলো বন্যা। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগজনিত মৃত্যুর ক্ষেত্রে ওই অঞ্চলে সর্বোচ্চ ৯৫ শতাংশ হয়ে থাকে খরার কারণে।

প্রাকৃতিক দুর্যোগে সর্বোচ্চ ৪ লাখ মানুষ মারা গেছে ইথিওপিয়ায় (১৯৭৩-৮৩ সালের ভয়াবহ খরায়)। এ ছাড়া খরার কারণে মোজাম্বিকে ১৯৮১ সালে ১ লাখ ও সুদানে ১৯৮৩ সালে ১ লাখ ৫০ হাজার মানুষ মারা যায়।

দক্ষিণ আমেরিকা

আলোচ্য সময়ে দক্ষিণ আমেরিকায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে মোট ৩৪ হাজার ৮৫৪ জন মারা যায়। এর ৬০ শতাংশই মারা যায় সবচেয়ে বড় ১০টি প্রাকৃতিক দুর্যোগে। সব মিলিয়ে আর্থিক ক্ষতি হয় ৩ হাজার ৯২০ কোটি ডলার, যার ৩৮ শতাংশই হয় বড় ১০টি দুর্যোগে। ওই অঞ্চলের প্রাকৃতিক দুর্যোগের ৫৯ শতাংশই হলো বন্যা। ৭৭ শতাংশ মৃত্যু হয় বন্যায় এবং আর্থিক ক্ষতির ৫৮ শতাংশ হয় বন্যার কারণে।

 

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd