1. admin@dailyoporadh.com : admin :
আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীকে হত্যার উদ্দেশ্যে - দৈনিক অপরাধ
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইকবাল কার প্ররোচনায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন, তা বলেননি বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের বাণিজ্যিক সম্পর্ক করোনা মহামারির মধ্যেও খুব একটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশকে পৃথিবীর ‘নাম্বার ওয়ান’ বা সেরা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন করোনা সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ সময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৭৮ জন। চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের ব্যাংক হিসাব থেকে আরও আড়াই কোটি টাকা আত্মসাত সারা দেশে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গণ–অনশন, গণ–অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উচ্চমাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য আবার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সাম্প্রদায়িক শক্তি মনে করে, ঠিক একাত্তরের মতো টার্গেট করে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায় কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীকে হত্যার উদ্দেশ্যে

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৮ বার পঠিত

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে আত্মঘাতী বোমা হামলাকারীকে হত্যার উদ্দেশ্যে যুক্তরাষ্ট্র যে ড্রোন হামলা চালিয়েছিল, তাতে ১০ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করেছে পেন্টাগন। কাবুল থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের আগের দিন ওই ড্রোন হামলা চালানো হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের তদন্তে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ডের তদন্তে দেখা গেছে, ২৯ আগস্টে ওই মার্কিন ড্রোন হামলায় একজন ত্রাণসহায়তা কর্মী ও তাঁর পরিবারের নয় সদস্য প্রাণ হারান। এর মধ্যে সাতজনই শিশু। সবচেয়ে ছোট শিশুর নাম সুমাইয়া। তার বয়স ছিল মাত্র দুই বছর।

গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার পর দেশটির নাগরিকেরা দেশ ছাড়তে কাবুল বিমানবন্দরে জড়ো হন। তাঁদের উদ্ধারে যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ যখন ফ্লাইট পরিচালনায় ব্যস্ত, তখন ওই বিমানবন্দর এলাকায় ভয়াবহ আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়। এতে অন্তত ১৭০ বেসামরিক নাগরিক ও ১৩ মার্কিন সেনা নিহত হন। আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের আফগানিস্তান শাখা আইএস-কে (ইসলামিক স্টেট–খোরাসান) ওই হামলার দায় স্বীকার করে। ওই হামলার কয়েক দিন পর ড্রোন হামলাটি চালায় যুক্তরাষ্ট্র। আফগানিস্তানে ২০ বছর যুদ্ধের সমাপ্তি টানার শেষ মুহূর্তে এটিই ছিল মার্কিন বাহিনীর শেষ হামলা।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল কমান্ডের জেনারেল কেনেথ ম্যাকেঞ্জি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দারা ওই ত্রাণসহায়তা কর্মীর একটি ব্যক্তিগত গাড়িকে শনাক্ত করে ড্রোন হামলা চালানোর আট ঘণ্টা আগে ভেবেছিলেন, ব্যক্তিগত গাড়িটি আইএস–কের কোনো আত্মঘাতী হামলাকারীর।

যুক্তরাষ্ট্রের তদন্তে দেখা গেছে, ওই ত্রাণসহায়তা কর্মীর গাড়িটি আইএস–কের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট একটি ভবনের কাছে দেখা গিয়েছিল। কাবুল বিমানবন্দরে আবার আইএস–কের আত্মঘাতী হামলার পরিকল্পনার বিষয়ে অন্য গোয়েন্দাদের তথ্য মিলিয়ে দেখেই গাড়িটির ওপর ড্রোন হামলা চালানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একপর্যায়ে পর্যবেক্ষণ ড্রোন দেখতে পায়, লোকটি গাড়ির বুটে (পেছনের অংশে) বিস্ফোরকদ্রব্যের মতো দেখতে কিছু একটা তুলছেন। আসলে সেগুলো ছিল পানির কন্টেইনার।

জেনারেল ম্যাকেঞ্জি ওই ড্রোন হামলাকে ‘মর্মান্তিক ভুল’ বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, ওই হামলা চালানোর ঘটনায় তালেবানের থেকে কোনো গোয়েন্দা তথ্য নেওয়া হয়নি।

নিহত ওই ত্রাণসহায়তা কর্মীর নাম জামাইরি আকমাদি। কাবুল বিমানবন্দর থেকে তিন কিলোমিটার দূরে তাঁর গাড়িতে ড্রোন হামলা চালানো হয়। মার্কিন বাহিনী প্রথমে বলেছিল, গাড়িটি বিস্ফোরকদ্রব্যে ভর্তি ছিল।

নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে একজন ছিলেন আহমাদ নাসের। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বাহিনীর দোভাষী হিসেবে কাজ করতেন। অন্য একজন আন্তর্জাতিক সংস্থায় কাজ করতেন। যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার জন্য তাঁদের কাছে ভিসাও ছিল।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd