1. admin@dailyoporadh.com : admin :
গত দুই দশকে ২৪ বার সুন্দরবনের পূর্ব বন বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে - দৈনিক অপরাধ
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইকবাল কার প্ররোচনায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন, তা বলেননি বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের বাণিজ্যিক সম্পর্ক করোনা মহামারির মধ্যেও খুব একটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশকে পৃথিবীর ‘নাম্বার ওয়ান’ বা সেরা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন করোনা সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ সময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৭৮ জন। চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের ব্যাংক হিসাব থেকে আরও আড়াই কোটি টাকা আত্মসাত সারা দেশে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গণ–অনশন, গণ–অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উচ্চমাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য আবার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সাম্প্রদায়িক শক্তি মনে করে, ঠিক একাত্তরের মতো টার্গেট করে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায় কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে

গত দুই দশকে ২৪ বার সুন্দরবনের পূর্ব বন বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭২ বার পঠিত

নিজের শরীরে তাপ না লাগলে আগুনের উত্তাপও শুধু সাময়িক খবরেই থাকে। মে মাসে সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জের দাসের ভারানির আগুন নিভে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের কাছ থেকেও হারিয়ে গিয়েছে। কিন্তু সম্প্রতি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের বড় বড় দাবানলের খবর আবার আতঙ্কিত করছে, শুষ্ক মৌসুমে সুন্দরবনের ছোট আগুনই বড় রূপ নিলে কী ঘটতে পারে? সর্বশেষ আগুনের ধরন দেখে এখান থেকে বড় ধরনের আগুনের আশঙ্কা অমূলক নয় বলে মনে করেন বনজীবী মানুষ।

গত দুই দশকে ২৪ বার সুন্দরবনের পূর্ব বন বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। যথাসময়ে তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছে। কিন্তু ঘুরেফিরে একই সুপারিশ বারবার আসায় স্পষ্ট যে আগের সুপারিশ কার্যকর হয় না যথাযথভাবে। আগুনের কারণ হিসেবে প্রতিবারই উঠে আসে জেলে, মৌয়ালদের বিড়ি-সিগারেট বা মৌমাছি তাড়াতে জ্বালানো মশাল থেকেই সবচেয়ে বেশি আগুনের সূত্রপাতের কথা। অপর দিকে বনজীবী মানুষ বলেন, তাঁরাই বন চেনেন সবচেয়ে ভালোভাবে। এসব আগুনের সঙ্গে আছে প্রভাবশালীদের হস্তক্ষেপের ঘটনা। আগুনের ধরন ও এর ভয়াবহতা নিয়ে সৎভাবে জানা যায় স্থানীয় স্বল্প আয়ের মানুষের কাছ থেকে, যাঁদের আয়-উপার্জন সবটাই বননির্ভর।

বনজীবীদের দেখা আগুন

দাসের ভারানি এলাকার আগুন নদীর স্রোতের মতো দ্রুত দৌড়াতে দেখেছিলেন সেলিম হোসেন (ছদ্মনাম)। বাগেরহাটের শরণখোলার সোনাতলা গ্রামের সেলিম জানালেন, আগুন গাছ থেকে গাছে ছড়িয়েছে, তবে নিচের স্তূপ করা পাতায় সূত্রপাত বলে গতি ছিল ভূমিতে। বাতাসে ওপরের দিকে পাতায় ছড়ালে দাবানলে রূপ পাওয়া অসম্ভব ছিল না। মশাল বা বিড়ি–সিগারেট থেকে আগুন তখনই লাগতে পারে, যখন এই জেলে মৌয়ালরা অসচেতন থাকেন। কিন্তু নিজের একমাত্র জীবিকার স্থানে কেউ অসচেতন হয় না, আর বনজীবীদের পক্ষে তা বনকে অপমানের শামিল। প্রথমত, একই জায়গায় তাঁদের আবার মধু বা মাছ সংগ্রহের জন্য আসতে হয়। দ্বিতীয়ত, অপরাধ প্রমাণিত হলে বন আইনের কঠোর শাস্তি থেকে পরিত্রাণের সহায়তা তাঁদের নেই।

সেলিম বলছিলেন, করোনার জন্য তিন মাস বন বন্ধ থাকাকালে বনজীবী অনেকের ঘরেই দুই বেলা খাবার থাকত না। কেউ কেউ নিরুপায় হয়ে বনের গাঙ, খাল বা ভারানিতে গোপনে মাছ ধরতে গিয়েছেন। কয়েকটা মাছের বিনিময়ে কিনেছেন দুই কেজি চাল। বিষ দিয়ে মাছ ধরার ঘটনাও যে ঘটে না, তা নয়। তবে এ সংখ্যা অনুল্লেখযোগ্যই। বড় খালের মুখ আটকে বিষ দিয়ে মাছ ধরার ঘটনা বড় শিকারিদের, যারা সংঘবদ্ধ চক্র। তাদের নিরাপত্তার দায় ক্ষমতাসীনদের। তাদের পুলিশও ধরে না, সেই জেলে-মৌয়ালদের হাঁড়ির গহ্বরে থাকে না হা হা করা শূন্যতা।

শরণখোলার আফজাল (ছদ্মনাম) কাজ করেন কমিউনিটি পেট্রল গ্রুপের (সিপিজি) হয়ে। বিনা বেতনের এই চাকরিসূত্রে দাসের ভারানির অগ্নিকাণ্ডের সময় টানা চার দিন উপস্থিত ছিলেন ঘটনাস্থলে। বলছিলেন, শুকনা পাতার আগুনে প্রথমে পুড়েছে মৃত গাছ। ফায়ার সার্ভিস ও বন বিভাগের কর্মীরা দ্রুত ও সময়মতো ফায়ার লাইন না করতে পারলে আগুন ছড়িয়ে যেত। কেননা জায়গাটি শুষ্ক ঝোপঝাড়ে ভর্তি। ধারেকাছে পানি নেই। পাইপ বসিয়ে বসিয়ে পানি আনতে হয়েছে বড় নদী থেকে। এই ফায়ার লাইন হচ্ছে আসলে ‘লাইন অফ ফায়ার’ (নির্দিষ্ট সীমানা খনন করে দ্রুত যেসব গাছের মাধ্যমে ছড়ায়, সেসব কেটে আগুনের কেন্দ্রস্থলকে বিচ্ছিন্ন করা)। কর্মীরা বনে পৌঁছাতে দেরি হলে কী ঘটত বলা যায় না। সব সময় তাঁরা ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে বুঝতে পারবেন, এমন প্রত্যাশাও ঠিক নয়। খবর পেয়ে মোরেলগঞ্জ, শরণখোলা ও বাগেরহাট থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের‍ পৌঁছানো সময়সাপেক্ষ ছিল।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd