1. admin@dailyoporadh.com : admin :
কক্সবাজারে আওয়ামী লীগ নেতাকে সাময়িক বহিষ্কার - দৈনিক অপরাধ
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:১১ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইকবাল কার প্ররোচনায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন, তা বলেননি বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের বাণিজ্যিক সম্পর্ক করোনা মহামারির মধ্যেও খুব একটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশকে পৃথিবীর ‘নাম্বার ওয়ান’ বা সেরা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন করোনা সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ সময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৭৮ জন। চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের ব্যাংক হিসাব থেকে আরও আড়াই কোটি টাকা আত্মসাত সারা দেশে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গণ–অনশন, গণ–অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উচ্চমাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য আবার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সাম্প্রদায়িক শক্তি মনে করে, ঠিক একাত্তরের মতো টার্গেট করে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায় কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে

কক্সবাজারে আওয়ামী লীগ নেতাকে সাময়িক বহিষ্কার

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭৪ বার পঠিত

কক্সবাজারে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় ১১ চেয়ারম্যান প্রার্থীকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে জেলা আওয়ামী লীগ। একই সঙ্গে দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার অভিযোগে আরও দুই আওয়ামী লীগ নেতাকেও সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। আজ বুধবার এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ২০ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের দুটি পৌরসভা (চকরিয়া ও মহেশখালী) এবং টেকনাফ, মহেশখালী, কুতুবদিয়া ও পেকুয়া উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন হতে যাচ্ছে। মেয়র ও চেয়ারম্যান পদে দলের প্রার্থী হিসেবে ১৬ জনকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। কিন্তু সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে দলের অনেকে স্বতন্ত্র বা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। এ ব্যাপারে বিদ্রোহীদের নির্বাচন থেকে সরে যেতে অনুরোধ জানিয়ে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। কেউ কেউ সরেও গেছেন। কিন্তু অনেকে মাঠে সক্রিয় আছেন। এ পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মোতাবেক আজ বুধবার ১১ স্বতন্ত্র ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং দলের ২ নেতাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

সিদ্ধান্ত অমান্য করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার কারণ জানতে চেয়ে বহিষ্কৃত নেতাদের পুনরায় নোটিশ পাঠানো হচ্ছে। কারণ দর্শাতে ব্যর্থ হলে স্থায়ীভাবে তাঁদের বহিষ্কার করা হবে।

ফরিদুল ইসলাম আরও বলেন, এখনো অনেক ইউনিয়নে দলের একাধিক স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়ে গেছেন। দলের বহু নেতা দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করে চুপ মেরে আছেন, কিছু নেতা নীরবে অন্য পক্ষ সমর্থন করছেন। তাঁদেরও বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
১১ ইউপি চেয়ারম্যান ও দলের দুই নেতাকে বহিষ্কারের বিষয়ে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এম এ মনজুর। দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয় ওই বিজ্ঞপ্তিতে।

সাময়িক বহিষ্কার হওয়া দলের বিদ্রোহী প্রার্থীরা হলেন টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নূর হোসেন, হ্নীলা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা কামাল উদ্দীন আহমদ, মহেশখালীর কুতুবজোম ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মোশারফ হোসেন, মাতারবাড়ীর বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ উল্লাহ, সাবেক চেয়ারম্যান এনামুল হক, রুহুল আমিন ও আবদুস সাত্তার, হোয়ানক ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা মীর কাসেম, ওয়াজেদ আলী, কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরুং ইউনিয়নের সিরাজ উদ্দৌলা এবং পেকুয়ার টৈটং ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা মো. শহীদুল্লাহ।

দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থায় নেওয়ায় মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর আলম ও টেকনাফ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আহামদকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাময়িক বহিষ্কারের পর তাঁদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশের সন্তোষজনক জবাব না দিলে চূড়ান্তভাবে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় হাইকমান্ডের কাছে সুপারিশ করবে জেলা আওয়ামী লীগ।

উল্লেখ্য, ১৪ সেপ্টেম্বর “৩৩ ‘বিদ্রোহী’ নিয়ে বিপাকে আওয়ামী লীগ” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। তাতে বলা হয়, নৌকা ঠেকাতে বিএনপি ও জামায়াতের নেতা-কর্মীরা গোপনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন। এতে নৌকা প্রতীকের কিছু দলীয় প্রার্থী পড়েন বিপাকে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd