1. admin@dailyoporadh.com : admin :
দ্রুত টিকা দেওয়া প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেপ্তার - দৈনিক অপরাধ
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৭ অপরাহ্ন
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের বাণিজ্যিক সম্পর্ক করোনা মহামারির মধ্যেও খুব একটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশকে পৃথিবীর ‘নাম্বার ওয়ান’ বা সেরা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন করোনা সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ সময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৭৮ জন। চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের ব্যাংক হিসাব থেকে আরও আড়াই কোটি টাকা আত্মসাত সারা দেশে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গণ–অনশন, গণ–অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উচ্চমাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য আবার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সাম্প্রদায়িক শক্তি মনে করে, ঠিক একাত্তরের মতো টার্গেট করে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায় কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে কক্সবাজারে আটক হওয়া ব্যক্তিই কুমিল্লার ইকবাল হোসেন, পুলিশ সুপার (এসপি)

দ্রুত টিকা দেওয়া প্রতারক চক্রের চার সদস্য গ্রেপ্তার

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক।
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৯ বার পঠিত

মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে বিদেশগামী ব্যক্তিদের দ্রুত করোনার টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল একটি প্রতারক চক্র। এর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গতকাল বুধবার রাতে রাজধানীর মুগদা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁদের কাছ থেকে প্রতারণায় ব্যবহৃত মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব বলেছে, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা দুই শতাধিক বিদেশগামী ব্যক্তিদের কাছ থেকে আড়াই থেকে পাঁচ হাজার টাকা করে নিয়েছে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন নুরুল হক, সাইফুল ইসলাম, ইমরান হোসেন ও দুলাল মিয়া।

মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে বিদেশগামী ব্যক্তিদের দ্রুত করোনার টিকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল একটি প্রতারক চক্র। এর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গতকাল বুধবার রাতে রাজধানীর মুগদা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চক্রের চার সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁদের কাছ থেকে প্রতারণায় ব্যবহৃত মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব বলেছে, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা দুই শতাধিক বিদেশগামী ব্যক্তিদের কাছ থেকে আড়াই থেকে পাঁচ হাজার টাকা করে নিয়েছে। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন নুরুল হক, সাইফুল ইসলাম, ইমরান হোসেন ও দুলাল মিয়া।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন। তিনি বলেন, কিছু সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে, কয়েকজন প্রতারক বিভিন্ন হাসপাতালের সামনে অবস্থান করে বিদেশগামী প্রার্থীদের মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে দ্রুত টিকা দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন। গণমাধ্যমে এ খবর ছড়িয়ে পড়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এরপর ওই প্রতারকদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে র‌্যাব গোয়েন্দা কার্যক্রম শুরু করে।
গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় র‌্যাব-৩–এর একটি দল মুগদায় অভিযান চালিয়ে প্রতারক চক্রের মূল হোতা নুরুল হক এবং তাঁর তিন সহযোগী সাইফুল ইসলাম, ইমরান হোসেন ও দুলাল মিয়াকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাব পরিচালক খন্দকার আল মঈন বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে প্রতারকেরা র‌্যাবকে বলেছেন, সরকারি টিকাদান কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর তাঁরা বিদেশগামী ব্যক্তিদের খুদে বার্তা পাঠিয়ে দ্রুত টিকা দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। সরকারি সাতটি হাসপাতাল বিদেশগামী ব্যক্তিদের টিকা দেওয়ার জন্য নির্ধারিত। প্রতারকেরা ওইসব হাসপাতালের সামনেই অবস্থান নিতেন। ভিসা ও বিমান টিকিটের স্বল্প মেয়াদের কারণে বিদেশগামী ব্যক্তিরা দ্রুত টিকা পেতে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে যোগাযোগ করতেন। প্রতারকেরা সেই সুযোগই বেছে নেন। তিনি বলেন, বিদেশগামী ব্যক্তিদের করোনার টিকা নেওয়ার বাধ্যবাধকতা আছে। অনলাইনে ফরম পূরণ করলে কেউ স্বাভাবিক নিয়মে, আবার কেউ উৎকোচ দেওয়ার মাধ্যমে এসএমএস পেতেন। স্বাভাবিক নিয়মে এসএমএস পেলে প্রতারকেরা তাঁদের জন্য এসএমএস গেছে বলে টাকা হাতিয়ে নিতেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বিদেশগামী আবার কেউ এসএমএস না পেয়েও প্রতারিত হতেন। র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা বলেছেন, চক্রের মূল হোতা নুরুল ইসলাম। গ্রেপ্তার সাইফুল ও ইমরান হাসপাতালের সামনে দাঁড়িয়ে বিদেশগামী ব্যক্তিদের দ্রুত এসএমএস পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে প্রলোভন দেখাতেন। পরে টিকাপ্রার্থীদের কাছে চক্রের মূল হোতা নুরুলের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হতো। নুরুল বিদেশগামী ব্যক্তিদের সঙ্গে দর-কষাকষি করে টাকার অঙ্ক ঠিক করতেন। দফারফা হওয়ার পর নুরুল বিদেশগামী ব্যক্তিদের দুলালের কাছে নিয়ে যেতেন। টাকার ওপর নির্ভর করে দুলাল সেই টিকা এক দিনে না চার দিনে পাওয়া যাবে, সেই ব্যবস্থা করতেন।

রাজধানীর মুগদা, রমনা ও শেরেবাংলা নগর এলাকায় এসব প্রতারক চক্র তৎপর রয়েছে।র‌্যাব পরিচালক মঈন বলেন, নুরুল দীর্ঘদিন বিদেশে ছিলেন। ২০১৮ সালে ভিসা জটিলতায় তিনি বিদেশে যেতে পারেননি। ১৯৯৮ সালে লিবিয়ায় যান তিনি। প্রতারক চক্রের সদস্য সাইফুল আগে সরকারি কাজ করতেন। অনৈতিক কাজের কারণে তাঁকে চাকরিচ্যুত করা হয়। সরকারি চাকরি চলে যায়। ইমরান একটি ট্রাভেল এজেন্সি ও দুলাল একটি সরকারি হাসপাতালে আউটসোর্সিংয়ে গাড়িচালক হিসেবে কর্মরত।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd