1. admin@dailyoporadh.com : admin :
বিশ্ববিদ্যালয় কতখানি গণতান্ত্রিক - দৈনিক অপরাধ
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫১ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে কক্সবাজারে আটক হওয়া ব্যক্তিই কুমিল্লার ইকবাল হোসেন, পুলিশ সুপার (এসপি) উজানের পাহাড়ি ঢল আর দুই দিনের বর্ষণে লালমনিরহাটে তিস্তার পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে দুর্গাপূজার অষ্টমীর দিন কুমিল্লা নগরের নানুয়া দিঘির উত্তর পাড়ের অস্থায়ী পূজামণ্ডপে ইকবাল হোসেন (৩৫) পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন বলে পুলিশ জানিয়েছে রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার জন্যই দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিস্তার ঘটছে বলে মনে করেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলিউড তারকা শাহরুখ খানের বাড়িতে তল্লাশি চালাতে ঢুকেছেন ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) কর্মকর্তারা দেশের ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে, ক্রমান্বয়ে দেশের সব মানুষই টিকা পাবে দেশের দ্বিতীয় শীর্ষ মোবাইল অপারেটর রবি আজিয়াটা তাদের সব মোবাইল নেটওয়ার্ক টাওয়ার বিক্রি করে দিচ্ছে রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে, পরে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে

বিশ্ববিদ্যালয় কতখানি গণতান্ত্রিক

জয়িতা দাস।
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২৩ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৬ বার পঠিত

শিরোনামে ‘গণতান্ত্রিক’ কথাটা বার্ট্রান্ড রাসেলের অর্থে ব্যবহার করা হয়েছে। শিক্ষার ক্ষেত্রে ‘অভিজাতবাদী’ ও ‘গণতন্ত্রবাদী’দের মধ্যে বিবাদের মীমাংসার বিষয়টি তিনি গুরুত্ব দিয়ে ভেবেছিলেন। বার্ট্রান্ড রাসেল কথাটা বলেছিলেন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থের জোগান কতখানি পুঁজিপতি ব্যবসায়ীদের হাতে, আর কতখানি ব্যবসায়মুক্ত, সে বিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে। তাঁর মতে, ইংল্যান্ড ও আমেরিকার বেশির ভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থের জোগান যেহেতু ব্যবসায়ীদের, সেহেতু তাঁদের ব্যবসায়িক প্রয়োজন এবং ফরমাশমতো পেশাগত শিক্ষা দিয়ে স্নাতক তৈরি করতে গিয়ে নিউম্যানের জ্ঞানভিত্তিক এবং লক ও মিলের উপযোগভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ধারণার মধ্যে সমন্বয় ও বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়। এটাই রাসেলের মতে বিশ্ববিদ্যালয়ে গণতন্ত্রের হানি।

রাসেলের গণতন্ত্র হলো অভিজাতবাদের জ্ঞান ও গণমানুষের পেশার মধ্যে গ্রহণযোগ্য সমন্বয় সাধন। On Education বইয়ের শুরুতেই তিনি এ নিয়ে মতামত দিয়েছেন, ‘গণতন্ত্র বলিতে যদি ইহাই বুঝায় যে সকলের জন্য একই স্তর সুনির্দিষ্ট থাকিবে, তবে তাহার ফল হইবে মারাত্মক। কতক বালক-বালিকার বুদ্ধি অপরের চেয়ে বেশি এবং তাহারা উচ্চ শিক্ষা হইতে অন্যের তুলনায় অধিকতর সুফল লাভ করিতে পারে। কতক শিক্ষক উৎকৃষ্টতর শিক্ষা লাভ করিয়াছেন, কাহারও বা স্বাভাবিক শিক্ষা ক্ষমতা অপরের চেয়ে বেশি। কিন্তু সকলের পক্ষেই উত্তম শিক্ষকের নিকট শিক্ষা লাভ করা অসম্ভব। সর্বোচ্চ শিক্ষাও সকলের জন্য বাঞ্ছনীয় মনে করা গেলেও বর্তমানে ইহা কদাচ সম্ভবপর নয়। কাজেই গণতান্ত্রিক নীতি অপপ্রয়োগ করিয়া বলা চলে, যেহেতু উচ্চ শিক্ষা লাভ সকলের পক্ষে সম্ভবপর নয় অতএব কাহাকেও ইহা দেওয়া উচিত নয়। এইরূপ নীতি গৃহীত হইলে বৈজ্ঞানিক অগ্রগতি রুদ্ধ হইয়া যাইবে এবং শত বৎসরের জন্য শিক্ষার সাধারণ স্তর নীচে নামিয়া যাইবে। বর্তমান মুহূর্তে mechanical equality-র বা যান্ত্রিক সমতার জন্য অগ্রগতি ব্যাহত করা উচিত হইবে না। সামাজিক অবিচারের সঙ্গে সংযুক্ত থাকিলেও বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থায় মূল্যবান সুফল ও সম্ভাব্যতা যথাসম্ভব কম নষ্ট করিয়া আমাদিগকে শিক্ষাক্ষেত্রে গণতান্ত্রিকতা আনয়ন করিতে হইবে। অত্যন্ত সতর্কতার সহিত এ বিষয়ে অগ্রসর হওয়া আবশ্যক।’ অন এডুকেশন, বার্ট্রান্ড রাসেল। অনুবাদ: নারায়নচন্দ্র চন্দ। ১৯৯৭। পৃ. ১৭-১৮।
উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে অভিজাতবাদীদের উদ্দেশ্য হলো জ্ঞানের জন্য জ্ঞান এবং সে জ্ঞান ‘আলংকারিক’। আর গণতন্ত্রীদের উদ্দেশ্য হলো কার্যকরী জ্ঞান এবং সে জ্ঞান ব্যবহারিক। এ বিশুদ্ধ আলংকারিক জ্ঞান ও ব্যবহারিক জ্ঞানের বিতর্ক বিশ্ববিদ্যালয় ধারণার শুরু থেকেই চলে আসছে। এর সঙ্গে জড়িয়ে গেছে উপনিবেশে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার রাজনৈতিক অর্থনীতি। অন্তত দুটো ক্ষেত্রে তা অত্যন্ত পরিষ্কার। প্রথমত, আয়ারল্যান্ড। ১৬৯১ থেকে আয়ারল্যান্ড ইংল্যান্ডের ঔপনিবেশিক শোষণের শিকার। একটানা শোষণের ফলে ১৮৪৫ থেকে ১৮৪৯ পর্যন্ত ব্যাপক সময়জুড়ে দেখা দেয় ‘মহা আইরিশ আলু দুর্ভিক্ষ’ (Great Irish Potato famine)। এক লাখ আইরিশ মারা যায় এবং অন্য এক থেকে দেড় লাখ সে সময় দেশ ছেড়ে চলে যায়। ফলে ইংরেজের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো ‘ইম্পেরিয়াল কমপেনসেশন’ খেলা শুরু হয়ে যায়। বিক্ষুব্ধ আয়ারল্যান্ডের জনরোষ এবং দারিদ্র্য কিছুটা কমাতে এবং ধ্বংস হয়ে যাওয়া শ্রমবাজার বাঁচিয়ে তুলতে ইংরেজ সিদ্ধান্ত নেয় আয়ারল্যান্ডে তিন তিনটে সেক্যুলার বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার, যার মধ্যে একটা আইরিশ ক্যাথলিক ইউনিভার্সিটি।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd