1. admin@dailyoporadh.com : admin :
ই-অরেঞ্জের গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুটি মামলা - দৈনিক অপরাধ
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ইকবাল কার প্ররোচনায় পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন, তা বলেননি বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের বাণিজ্যিক সম্পর্ক করোনা মহামারির মধ্যেও খুব একটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তুরস্কের রাষ্ট্রদূত ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশকে পৃথিবীর ‘নাম্বার ওয়ান’ বা সেরা উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন করোনা সংক্রমণে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে, এ সময় নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৭৮ জন। চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষা বোর্ডের ব্যাংক হিসাব থেকে আরও আড়াই কোটি টাকা আত্মসাত সারা দেশে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে গণ–অনশন, গণ–অবস্থান ও বিক্ষোভ মিছিল করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা উচ্চমাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের জন্য আবার সুযোগ দিয়েছে ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সাম্প্রদায়িক শক্তি মনে করে, ঠিক একাত্তরের মতো টার্গেট করে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা চালিয়ে তাদের দেশ থেকে বের করে দেওয়া যায় কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে

ই-অরেঞ্জের গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুটি মামলা

জুয়েল দাস।
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২০ আগস্ট, ২০২১
  • ৪৬ বার পঠিত

এক লাখ গ্রাহকের প্রায় ১ হাজার ১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ওঠা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জ শপের দুটি ব্যাংক হিসাব খুঁজে পেয়েছে পুলিশ। গত ২০ জুলাইয়ের হিসাব অনুযায়ী, সেই দুটি ব্যাংক হিসাবে বর্তমানে আছে ৩ কোটি ১২ লাখ ১৪ হাজার ৩৫৬ টাকা।

প্রতিষ্ঠানটির হিসাব বিবরণীর তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণ করে আরও দেখা গেছে, গত ২০ জুলাই পর্যন্ত সিটি ব্যাংকের একটি হিসাবে জমা পড়ে ৬২০ কোটি ৬৭ লাখ ২০ হাজার ৭২৯ টাকা। এই সময়ের মধ্যে ৬২০ কোটি ৪৪ লাখ ৭১ হাজার ৯৯২ টাকা তুলে নেওয়া হয়। বর্তমানে ওই হিসাবে টাকা জমা আছে ২২ লাখ ৪৮ হাজার ৭৩৭ টাকা।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ই-অরেঞ্জের ব্র্যাক ব্যাংকের হিসাবে জমা ছিল ১ হাজার টাকা। তবে গত ৩০ জুন পর্যন্ত এই ব্যাংক হিসাবে জমা পড়ে ৩৯১ ই-অরেঞ্জের গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইতিমধ্যে দুটি মামলা কোটি ৬৭ লাখ ৬১ হাজার ৮৭৯ টাকা। একই সময়ে এই হিসাব থেকে তুলে নেওয়া হয়েছে ৩৮৮ কোটি ৭৭ লাখ ৯৬ হাজার ২৫৯ টাকা। বর্তমানে জমা আছে মাত্র ২ কোটি ৮৯ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৯ টাকা।

ই-অরেঞ্জের গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ইতিমধ্যে দুটি মামলা (তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ও গুলশান) হয়েছে। একটি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির তেজগাঁও জোনাল টিমের পরিদর্শক শেখ লিয়াকত আলী  বলেন, ‘ই-অরেঞ্জের দুটি ব্যাংক হিসাবের বিস্তারিত তথ্য ইতিমধ্যে আমরা সংগ্রহ করেছি। তা পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

ই-অরেঞ্জ নামের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটি লোভনীয় অফার দিয়ে দিয়ে গ্রাহকদের আকৃষ্ট করে। মোটরসাইকেল, মুঠোফোনসহ অন্যান্য জিনিসপত্র বিশেষ মূল্যছাড়ে কেনার জন্য বিপুল পরিমাণ গ্রাহক প্রতিষ্ঠানটির হিসাবে অগ্রিম অর্থ জমা দেয়। কিন্তু গত এপ্রিল মাস থেকে যথাসময়ে পণ্য সরবরাহ না করার অভিযোগ তুলতে শুরু করেন ক্ষুব্ধ গ্রাহকেরা। পণ্য না পাওয়া গ্রাহকেরা প্রতিষ্ঠানটির অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে যোগাযোগ করলেও তাঁদের সহযোগিতা না করার অভিযোগ ওঠে।

গত মঙ্গলবার ক্ষুব্ধ গ্রাহকেরা প্রতিষ্ঠানটির গুলশান কার্যালয় ঘেরাও করে। পরে সেদিন রাতে কমপক্ষে পাঁচ শতাধিক গ্রাহক প্রতিষ্ঠানটির একসময়ের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর সাংসদ ও জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজার পল্লবীর বাসার সামনে ভিড় করেন। পরদিন তাহেরুল ইসলাম নামের একজন গ্রাহক গুলশান থানায় ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন, তাঁর স্বামী মাসুকুর রহমানসহ পাঁচজনের নামে ১ হাজার ১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তুলে মামলা করেন। সেদিনই সোনিয়া ও তাঁর স্বামী মাসুকুর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠান। পরদিন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) আমান উল্লাহ চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়। বর্তমানে পলাতক রয়েছেন বীথি আক্তার ও কাউসার আহমেদ।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd