1. admin@dailyoporadh.com : admin :
ওয়ান্ডারার্সের অধিনায়ক ছিলেন বঙ্গবন্ধু, খেলতেন স্ট্রাইকার হিসেবে - দৈনিক অপরাধ
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১, ০৭:২৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কক্সবাজারের উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা শিবিরে দুটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনায় সাত জন নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন দ্বিতীয় ধাপে সারা দেশে ৮৪৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) নির্বাচন হতে যাচ্ছে কক্সবাজারে আটক হওয়া ব্যক্তিই কুমিল্লার ইকবাল হোসেন, পুলিশ সুপার (এসপি) উজানের পাহাড়ি ঢল আর দুই দিনের বর্ষণে লালমনিরহাটে তিস্তার পানিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে দুর্গাপূজার অষ্টমীর দিন কুমিল্লা নগরের নানুয়া দিঘির উত্তর পাড়ের অস্থায়ী পূজামণ্ডপে ইকবাল হোসেন (৩৫) পবিত্র কোরআন রেখেছিলেন বলে পুলিশ জানিয়েছে রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার জন্যই দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিস্তার ঘটছে বলে মনে করেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলিউড তারকা শাহরুখ খানের বাড়িতে তল্লাশি চালাতে ঢুকেছেন ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) কর্মকর্তারা দেশের ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী স্কুলশিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে, ক্রমান্বয়ে দেশের সব মানুষই টিকা পাবে দেশের দ্বিতীয় শীর্ষ মোবাইল অপারেটর রবি আজিয়াটা তাদের সব মোবাইল নেটওয়ার্ক টাওয়ার বিক্রি করে দিচ্ছে রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে, পরে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে

ওয়ান্ডারার্সের অধিনায়ক ছিলেন বঙ্গবন্ধু, খেলতেন স্ট্রাইকার হিসেবে

দৈনিক অপরাধ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৫ আগস্ট, ২০২১
  • ৬৭ বার পঠিত

ইতিহাসের বাঁকবদলের সেই শোকাবহ ১৫ আগস্ট আজ। ১৯৭৫ সালের আজকের দিনে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারকে। রক্তাক্ত সেই দিনে এক ক্রীড়া পরিবারকেই যেন হারিয়েছে দেশ। পূর্ব বাংলা ও স্বাধীন বাংলাদেশের খেলাধুলায় যে পরিবার রেখেছে অনন্য অবদান।

বঙ্গবন্ধু তরুণ বয়সে ফুটবলার ছিলেন। ১৯৩৬ সালে গোপালগঞ্জের তৎকালীন মিশন স্কুলের মাঠে সীতানাথ একাডেমির ফাইনাল খেলেছিলেন। ১৯৪০ থেকে ১৯৪৮ পর্যন্ত খেলেন তৎকালীন ঢাকার ফুটবলে অন্যতম শীর্ষ দল ওয়ান্ডারার্সে। ১৯৪৩ সালে বগুড়ায় একটি ফুটবল টুর্নামেন্টে শিরোপাজয়ী ওয়ান্ডারার্সের অধিনায়ক ছিলেন বঙ্গবন্ধু, খেলতেন স্ট্রাইকার হিসেবে।

নিজের অসমাপ্ত আত্মজীবনীতে বঙ্গবন্ধু লিখেছেন, ‘আমার আব্বাও ভালো খেলোয়াড় ছিলেন। তিনি অফিসার্স ক্লাবের সেক্রেটারি ছিলেন। আমি মিশন স্কুলের ক্যাপ্টেন ছিলাম। আব্বার টিম আর আমার টিমের খেলা হলে জনসাধারণ খুব উপভোগ করত। আমাদের স্কুল টিম খুব ভালো ছিল।’

যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকে দাঁড় করাতে বঙ্গবন্ধু উদ্যোগী হয়েছিলেন। ১৯৭৩ সালে ক্রীড়া ফেডারেশন গঠন শুরু করেন। ধানমন্ডিতে বর্তমান সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের জন্য সাড়ে ১২ বিঘা জমি দেন। ১৯৭৫ সালে সরকারি অর্থে নির্মিত হলো কমপ্লেক্সের নিজস্ব ভবন। আজ মেয়েদের খেলাধুলার নিজস্ব ভবন, মাঠ আছে। এ নিয়ে গর্বিত দেশের সাবেক চ্যাম্পিয়ন অ্যাথলেট শামীমা সাত্তার মিমু বলছিলেন, ‘বঙ্গবন্ধু সেদিন মেয়েদের খেলাধুলার জন্য আলাদা সংস্থা ও ভবন তৈরি না করলে আজ হয়তো খেলাধুলায় মেয়েরা এত এগোত না।’

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ দৈনিক অপরাধ ©
A Sister Concern of Prachi 2020 Ltd